Buscar
09:22h. Jueves, 20 de Septiembre de 2018

বিশ্বকাপের প্রাথমিক দল থেকে বাদ

দু’দিন আগেই এক জন জানিয়েছিলেন আগামী বিশ্বকাপে তাঁর খেলার ইচ্ছার কথা। দলে ফিরে আসার জন্য ‘প্রবল পরিশ্রম’ করার কথা জানিয়েছিলেন আর এক জন। বৃহস্পতিবার দু’জনকেই হতাশ করলেন জাতীয় নির্বাচকরা। .......

sehwag-cricket
sehwag-cricket

দু’দিন আগেই এক জন জানিয়েছিলেন আগামী বিশ্বকাপে তাঁর খেলার ইচ্ছার কথা। দলে ফিরে আসার জন্য ‘প্রবল পরিশ্রম’ করার কথা জানিয়েছিলেন আর এক জন। বৃহস্পতিবার দু’জনকেই হতাশ করলেন জাতীয় নির্বাচকরা। আগামী বছরের বিশ্বকাপের সম্ভাব্য ৩০ জনের দল থেকে বাদ পড়লেন বীরেন্দ্র সহবাগ এবং হরভজন সিংহ। একই সঙ্গে ছেঁটে ফেলা হয়েছে গৌতম গম্ভীর, যুবরাজ সিংহ এবং জাহির খানকেও। দলে রাখা হয়েছে বাংলার চার ক্রিকেটারকে। সিনিয়র পাঁচ ক্রিকেটারকে বাদ দিয়ে নির্বাচকরা বুঝিয়ে দিলেন তাঁরা তরুণদের উপরেই বেশি ভরসা করতে চান।

এ দিন দুপুর ১টা নাগাদ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে আগামী বিশ্বকাপের জন্য প্রাথমিক দল নির্বাচনে বসে সন্দীপ পাতিলের নেতৃত্বাধীন জাতীয় নির্বাচক দল। প্রাথমিক দলে গত বিশ্বকাপের সেরা পাঁচ ক্রিকেটারের থাকা নিয়ে বেশ কয়েক দিন ধরেই জল্পনা চলছিল। তালিকায় ছিলেন ২০১১-র বিশ্বকাপ ফাইনালের সেরা গম্ভীর, টুর্নামেন্টের সেরা যুবরাজ, অস্ট্রেলিয়ায় ধারাবাহিক ভাবে ভাল পারফর্ম করা সহবাগ, জাহির এবং হরভজন। মঙ্গলবারই সহবাগ জানিয়েছিলেন যে তিনি বিশ্বকাপে খেলতে চান। কয়েক দিন আগে দেশের অন্যতম সেরা অফ স্পিনার হরভজনও জানিয়েছিলেন বিশ্বকাপে খেলার জন্য পরিশ্রম বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। এ দিন শুধু এই পাঁচ জনকেই নয়, গত বিশ্বকাপের দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে মোট ১১ জনকে। বাদ পড়েছেন মুনাফ পটেল, ইউসুফ পাঠান, আশিষ নেহরা, পীযূষ চাওলা। এ ছাড়া বাদ দেওয়া হয়েছে ফিক্সিং কাণ্ডে অভিযুক্ত শ্রীসন্থকেও। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলের পরবর্তী বিশ্বকাপের দল থেকে এক সঙ্গে এত জন সিনিয়র ক্রিকেটারের বাদ পড়ার ঘটনা বেনজির।

সিনিয়রদের বাদ যাওয়া ছাড়া বাকি দলে তেমন কোনও চমক নেই। দলে রাখা হয়েছে ফর্মে থাকা ক্রিকেটারদেরই। বাংলার চার জনকে প্রাথমিক দলে রেখেছেন নির্বাচকরা। এঁদের মধ্যে শামি জাতীয় দলের নিয়মিত সদস্য। দলে ধোনির পর দু’নম্বর কিপার হিসাবে বহু দিন ধরেই জায়গা পাকা করেছেন ঋদ্ধিমান সাহা। আর ঘরোয়া মরসুমে অসাধারণ ফর্মে রয়েছেন মনোজ-দিন্দা। দেওধরের সেমিফাইনালে মনোজ এবং ফাইনালে দিন্দা ম্যাচের সেরা হন। ফলে সম্ভাব্য তিরিশে জায়গা প্রায় পাকাই ছিল এঁদের। এ ছাড়া দলে রাখা হয়েছে চায়নাম্যান বোলার কুলদীপ যাদবকে। জম্মু-কাশ্মীরের প্রথম ক্রিকেটার হিসাবে দলে জায়গা পেলেন অল রাউন্ডার পারভেজ রসুল। দলে রাখা হয়েছে স্টুয়ার্ট বিনিকেও। বাদ পড়া ক্রিকেটারদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য চেতেশ্বর পূজারা, দীনেশ কার্তিক, প্রজ্ঞান ওঝা এবং নমন ওঝা।