Buscar
02:14h. miércoles, 15 de julio de 2020

ইন্দোনেশিয়ায় রাস্তার খাবার খেতে নির্দেশ সরকার

ইন্দোনেশিয়া

খরচ কমাতে সরকারি কর্মকর্তাদের রাস্তার খাবার কিনে খেতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে আমলাতন্ত্রিক সংস্কারবিষয়ক মন্ত্রী ইয়াদি কৃষ্ণাদি এক নির্দেশে বলেন, ‘অতিরিক্ত যেকোনো কিছু বন্ধ করুন।’

 

খরচ কমাতে সরকারি কর্মকর্তাদের রাস্তার খাবার কিনে খেতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে আমলাতন্ত্রিক সংস্কারবিষয়ক মন্ত্রী ইয়াদি কৃষ্ণাদি এক নির্দেশে বলেন, ‘অতিরিক্ত যেকোনো কিছু বন্ধ করুন।’

আজ শুক্রবার এএফপির খবরে জানানো হয়, গত মাসে ক্ষমতায় আসার পর থেকে বিনয়ী নতুন প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো সরকারি ব্যয়ের লাগাম টানার উদ্যোগ নিয়েছেন। এরই অংশ হিসেবে এ সরকার কর্মকর্তাদের বিদেশি বিলাসবহুল খাবারের ব্যয় কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

দেশটির একজন মন্ত্রী বলেন, উচ্চপর্যায়ের সরকারি পার্টিগুলোতে অতিথিসংখ্যা ৪০০ জনের ভেতরে সীমাবদ্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আপ্যায়নের জন্য কাসাভা, ভুট্টা ও আলুর পিঠার মতো খাবার পরিবেশনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো ইতিমধ্যে তাঁর আগামী বছরের ভ্রমণ ও বৈঠকের ব্যয় কমিয়ে এনেছেন। গত সপ্তাহে ছেলের গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সিঙ্গাপুর ভ্রমণের সময় বিজনেস ক্লাসের পরিবর্তে ইকোনমি ক্লাসে ভ্রমণ করেন। তাঁর এ উদ্যোগ প্রশংসিত হয়েছে।

ইয়াদি কৃঞ্চাদি বলেন, অতিরিক্তি খাবার খাওয়ার কারণে এসব পেটুক কর্মকর্তা কোলেস্টরল ও উচ্চরক্তচাপের ঝুঁকিতে পড়ছেন। স্থানীয় খাবার কিনে তাঁরা স্থানীয় কৃষকদের সহায়তা করার পাশাপাশি নিজের শরীরের প্রতি যত্নও নিতে পারেন তাঁরা।

যাঁরা এ নির্দেশ অমান্য করবেন, তাঁদের পদাবনতি ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেন মন্ত্রী।

দুর্নীতির অভিযোগে ইমেজ-সংকটে ভোগা দেশটির বিদ্যুৎমন্ত্রী এরই মধ্যে অনুমোদিত খাবার, পানীয়র তালিকা নিজের মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের জানিয়ে দিয়েছেন। এর মাধ্যমে ইমেজ পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করছেন।

চীনা নেতা জিন পিং ২০১২ সালে ক্ষমতায় এসে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান শুরুর প্রাক্কালে এ ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছিলেন।