Buscar
06:56h. Viernes, 14 de Diciembre de 2018

বার্সাতেই থাকছেন মেসি

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো নতুন ক্লাবের প্রস্তাবে প্রাথমিক ভাবে রাজি। লিওনেল মেসি একেবারেই রাজি নন। নতুন বছর শুরু হতে না হতেই ফুটবলবিশ্বের দুই মহাতারকার ক্লাব বদলকে ঘিরে তুমুল আলোচনা শুরু ইউরোপে।.......

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো নতুন ক্লাবের প্রস্তাবে প্রাথমিক ভাবে রাজি।

লিওনেল মেসি একেবারেই রাজি নন।

নতুন বছর শুরু হতে না হতেই ফুটবলবিশ্বের দুই মহাতারকার ক্লাব বদলকে ঘিরে তুমুল আলোচনা শুরু ইউরোপে।

এক দিকে মেসিকে তুলতে ঝাঁপিয়েছে চেলসি, ম্যাঞ্চেস্টার সিটির মতো প্রিমিয়ার লিগের হেভিওয়েট ক্লাবরা। গত বছরের শেষের দিকে ফুটবলবিশ্বকে ধন্ধে ফেলে মেসি বলেছিলেন, “ফুটবলে কখন কী ঘটবে কিছুই বলা যায় না।” যার পরেই চেলসি ও প্যারিস সাঁ জাঁর মতো বিশ্বের ধনী ক্লাবগুলো দিয়েছিল রেকর্ড ২০০ মিলিয়ন পাউন্ডের প্রস্তাব। কিন্তু নতুন বছরের শুরুতেই বার্সেলোনা সমর্থকদের স্বস্তি দিয়ে এলএম টেন তাঁর সতীর্থদের জানিয়েছেন তিনি বার্সা ছেড়ে যাচ্ছেন না। এক ক্লাব সূত্রের মতে, মেসি নাকি ক্লাবের কর্তাদের আশ্বস্ত করেছেন, ক্লাব ছেড়ে যাওয়ার কোনও পরিকল্পনা নেই তাঁর। বার্সায় থেকেই অবসর নিতে চান এলএম টেন। নতুন চুক্তিতেও সই করতে রাজি আছেন।

তবে বার্সা সমর্থকদের খুশির বার্তা হলেও, লা লিগা শুরু হওয়ার আগে মাদ্রিদ সমর্থকরা একটু হলেও চিন্তিত থাকবেন। চিন্তার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন তাঁদের দলের মহাতারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। শোনা যাচ্ছে, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড এখনও আশা ছাড়েনি রোনাল্ডোকে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফেরানোর ব্যাপারে। ব্রিটিশ প্রচারমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, স্বপ্নের প্রত্যাবর্তনে রোনাল্ডোর এজেন্টের সঙ্গে প্রাথমিক কথাবার্তা শুরু করেছে ম্যান ইউ। এমনকী ৮০ মিলিয়ন পাউন্ডের প্রস্তাবে নাকি রাজি পর্তুগিজ মহাতারকা। যদি রোনাল্ডোকে আবার প্রিমিয়ার লিগে আনতে হয় তা হলে ম্যান ইউকে অপেক্ষা করতে হবে জুন মাস পর্যন্ত। বর্তমানে এই জটিল ট্রান্সফার হওয়া অসম্ভব। ম্যান ইউর নজরে শুধু রোনাল্ডোই নন। রয়েছেন গ্যারেথ বেলও। রোনাল্ডোকে নিতান্তই না সই করাতে পারলে তাঁর সতীর্থকে আবার প্রিমিয়ার লিগে ফেরাতে চান লুই ফান গল। যাঁর দর ১২০ মিলিয়ন পাউন্ড।  

তবে এই অনিশ্চয়তার মধ্যেই আবার লা লিগায় রবিবার মাঠে নামছেন সিআর সেভেন। প্রতিপক্ষ ভ্যালেন্সিয়ার মতো এক কঠিন দল। যে ম্যাচে রিয়াল টিমে ফিরতে পারেন সের্জিও র্যামোস। যিনি ছুটির সময় ফিটনেস ফেরাতে ব্যক্তিগত ভাবে ট্রেনিং করেছেন। ক্লাব বিশ্বকাপ জেতার পরে এই প্রথম কোনও প্রতিযোগিমূলক ম্যাচ খেলতে নামবে রিয়াল। কিন্তু বিশ্বের সেরা ক্লাবের সঙ্গে খেলার আগে কোনও মতেই ভয় পাচ্ছে না ভ্যালেন্সিয়া। দলের কোচ পিন্টো বলেছেন, “আমরা বিশ্বের সেরা ক্লাবের বিরুদ্ধে খেলতে নামব ঠিকই, কিন্তু আমার দলের ফুটবলাররা তৈরি। খুব সহজে রিয়ালকে তিন পয়েন্ট দেব না।” সঙ্গে রোনাল্ডো প্রসঙ্গে ভ্যালেন্সিয়া কোচের সংযোজন, “কোনও সন্দেহ নেই রোনাল্ডো বিশ্বের সেরা ফুটবলার। কিন্তু আমরা ঘরের মাঠে খেলছি। আশা করছি সেটা ভ্যালেন্সিয়া ফুটবলারদের তাতাবে।”