Buscar
06:16h. Lunes, 16 de diciembre de 2019

চলচ্চিত্র উৎসব

গত বছর শিলিগুড়িতে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব হয়নি। তা নিয়ে বাসিন্দাদের অনেকেই হতাশ হয়েছিলেন। সরকারি স্তরে পৃষ্ঠপোষকতার অভাবেই করা যায়নি বলে উদ্যোগীদের একাংশ জানান। তবে এ বার উৎসব হচ্ছে।...................

গত বছর শিলিগুড়িতে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব হয়নি। তা নিয়ে বাসিন্দাদের অনেকেই হতাশ হয়েছিলেন। সরকারি স্তরে পৃষ্ঠপোষকতার অভাবেই করা যায়নি বলে উদ্যোগীদের একাংশ জানান। তবে এ বার উৎসব হচ্ছে।

আগামী ১৯ নভেম্বর, বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে ১৫ তম আন্তর্জাতিক শিলিগুড়ি চলচ্চিত্র উৎসব। স্থানীয় দীনবন্ধু মঞ্চে উৎসব চলবে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত। সোমবার শিলিগুড়ির উত্তরকন্যায় সাংবাদিক বৈঠক করে এ কথা জানান উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী তথা উৎসবের মুখ্য পৃষ্ঠপোষক গৌতম দেব। তার আগে উত্তরকন্যায় নিজের দফতরে শিলিগুড়ি সিনে সোসাইটির কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠকও করেন। ঠিক হয়েছে উৎসবের উদ্বোধন করবেন চলচ্চিত্র পরিচালক তথা অভিনেতা কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর পরিচালিত ‘খাদ’ ছবি দিয়েই উৎসবের সূচনা হবে বলে জানানো হয়েছে।

উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী বলেন, “কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের অঙ্গ হিসেবে শিলিগুড়িতে এই উৎসব হচ্ছে। শিলিগুড়ি সিনে সোসাইটির সঙ্গে রাজ্য সরকারের তথ্য ও সংষ্কৃতি বিভাগ, উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতর, শিলিগুড়ি জলপাইগুড়ি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ যৌথ উদ্যোগে এই উৎসবের আয়োজন করছে।” বাংলার পাশাপাশি বিদেশী ছবিও থাকবে বলে জানানো হয়েছে। তবে ভারতীয় অন্য ভাষার কোনও ছবি এবারের উৎসবে থাকছে না। কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের মতই মূলত এশীয় দেশগুলোকে উৎসবে জায়গা দেওয়ার ব্যাপারে জোর দেওয়া হয়েছে। তবে লাতিন আমেরিকা ও ইউরোপের কিছু ছবিও এবার দেখানো হবে বলে জানান শিলিগুড়ি সিনে সোসাইটির কর্মকর্তা প্রদীপ নাগ।

উদ্যোক্তারা জানান, এবারের উৎসবে মোট ১১ টি দেশের ১৭ টি ছবি দেখানো হবে। প্রথম দিন সন্ধ্যা ৬ টায় অনুষ্ঠানের উদ্বোধন। দেখানো হবে ‘খাদ’। বুধবার থেকে তিনটি করে ছবি দেখানো হবে। বেলা ১ টা, ৪ টা এবং ৭ টায়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মান জানানো হবে কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের নির্দেশক ও নন্দনের মুখ্য কার্যনির্বাহী আধিকারিক যাদব মণ্ডলকে। উৎসবে মোট তিনটি বাংলা ছবি দেখানো হবে। খাদ ছাড়া ‘গোগোল’ এবং ‘আমার আমি’ রয়েছে তালিকায়। এছাড়া তাইওয়ান, ইরান, ইরাক, মায়ানমার, অস্ট্রেলিয়া, ইকুয়েডর, মেক্সিকো, ফিনল্যান্ড, জার্মানি ও বেলজিয়ামের ছবি রয়েছে।

মন্ত্রী জানান, আগামী ২৬ নভেম্বর কলকাতায় একটি বৈঠক রয়েছে। সেখানে সন্দীপ রায়ের সঙ্গে জলপাইগুড়িতে বন্যপ্রাণ নিয়ে চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজন নিয়ে কথা হবে।