Buscar
01:25h. Jueves, 14 de noviembre de 2019
bengala
দেশ
দাদাকে দূত করে দিদির রাজ্যে মোদীর দাদাগিরি

দাদাকে দূত করে দিদির রাজ্যে মোদীর দাদাগিরি

তাঁর ‘স্বচ্ছ ভারত’ অভিযানের জন্য দিদির রাজ্য থেকে দাদাকে দূত বাছলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী! নিছকই সরকারি অভিযানে আরও এক তারকা সংযোজন? নাকি এর সুদূরপ্রসারী রাজনৈতিক তাৎপর্য আছে? বড়দিনে মোদীর চাল এই প্রশ্নই তুলে দিল বাংলার রাজনীতিতে!লোকসভা নির্বাচনের আগে থেকেই পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির শক্তি এবং গ্রহণযোগ্যতা বাড়ানোর জন্য সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রের সেরাদের দলে আনার নির্দেশ দিয়েছিলেন মোদী। সেই তালিকায় অন্যতম ছিলেন ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়ক। মোদীর ইচ্ছেতেই সৌরভকে বিজেপির টিকিটে লড়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল লোকসভা ভোটের আগে। কিন্তু সেই সময় সরাসরি রাজনীতির ময়দানে নামার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন সৌরভ। এ বার পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা ভোট যখন এগিয়ে আসছে এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বিজেপির লড়াইয়ের পারদ যখন উত্তরোত্তর চড়ছে, সেই সময় মমতার রাজ্যে সৌরভকে কার্যত নিজের ‘ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর’ই বানিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী! বিজেপি নেতৃত্বের একাংশ স্বভাবতই মনে করছেন, সরাসরি রাজনীতি না করেও মোদীর এই চালে রাজ্যে তাঁদের দলের সুবিধাই হল।

 
রাজ্য
মমতার নাম মদনের মুখে

মমতার নাম মদনের মুখে

সারদা কেলেঙ্কারি প্রসঙ্গে আবার আদালতে উঠে এল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম।

এ বার মুখ্যমন্ত্রীর একনিষ্ঠ সৈনিক, সারদায় অভিযুক্ত মন্ত্রী মদন মিত্র আদালতে দাঁড়িয়ে মমতার নাম তুলে আনলেন। ঠিক যেমন, গত ১১ সেপ্টেম্বর এই আলিপুর আদালতে দাঁড়িয়েই কোনও প্রসঙ্গ ছাড়াই ‘কৌশলে’ মমতার নাম উল্লেখ করেছিলেন তৃণমূলের সহ-সভাপতি রজত মজুমদার। মঙ্গলবার কার্যত তারই প্রতিধ্বনি শোনা গেল মদনবাবুর মুখেও।

দেশ
হাত মিলিও কোন অশা পেলেন না মোদি

হাত মিলিও কোন অশা পেলেন না মোদি

হাত মেলানোর সৌজন্য দেখালেন দু’জনই। হাসি মুখে দাঁড়ালেনও ক্যামেরার সামনে। নরেন্দ্র মোদী এবং নওয়াজ শরিফের যে ছবি ওঠার পরে ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র সৈয়দ আকবরুদ্দিন টুইট করেন, ‘এই ছবির জন্যই আমরা সবাই অপেক্ষা করছিলাম।’ এর ফলে সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে দমবন্ধ আবহাওয়া কিছুটা হাল্কা হলেও দুই পড়শি দেশের মধ্যে বরফ কিন্তু আদৌ গলল না। বরং এ দিনই কাশ্মীরে সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষের পরে দিল্লি স্পষ্ট করে দিয়েছে, সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়া বন্ধ না করলে সম্পর্ক সহজ হবে না।..............

 
রাজ্য
 মিছিল ‘অন্যায়-অবিচার’

মিছিল ‘অন্যায়-অবিচার’

মিছিল ‘প্রতিবাদ’-এর। মিছিল ‘অন্যায়-অবিচার’-এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর। কিন্তু, কীসের প্রতিবাদ? অন্যায়-অবিচারই বা কী ধরনের?